হিলিতে মাল্টা চাষের ব্যাপক সম্ভাবনা

মোসলেম উদ্দিনমোসলেম উদ্দিন
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৭:১৫ PM, ১১ মার্চ ২০২০

দিনাজপুরের হিলিতে মাটি এবং আবহাওয়ার কারনে মাল্টা চাষের ব্যাপক সম্ভাবনা রয়েছে। এখনাকার মাটি ও আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় মাল্টা চাষে উদ্বুদ্ধ হচ্ছেন মাল্টাচাষীরা। মাল্টা বাগানে ফলের উৎপাদনের পাশাপাশি মাল্টার চারা উৎপাদন করছেন তারা। নতুন মাল্টাচারা বিক্রি করে স্বাবলম্বী হচ্ছেন অনেক মাল্টাচাষীরা।

দিনাজপুর জেলা কৃষি অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক তৌহিদুল ইকবাল জানান, জেলার ১৩ টি উপজেলায় মোট ১৭ হেক্টর জমিতে মাল্টা চাষ হচ্ছে। যার উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ৮৮ মেট্রিক টন। তিনি আরও জানান, মাল্টা চাষে চাষিদের উদ্বুদ্ধ করতে প্রতিটি উপজেলার কৃষি অফিসার সহ কর্মচারীরা তাদের পরামর্শ ও সহযোগীতা প্রদান করছেন।

হাকিমপুর উপজেলার বাগডোড় গ্রামের মাল্টাচাষী শাহাদৎ হোসেন সাদো জানান, দু’বছর আগে কৃষি অফিসের পরামর্শে ও তাদের দেওয়া মাল্টাচারা দিয়ে কৃষক শাহাদৎ হোসেন সাদো ১৭ শতক জমিতে বারি-১ জাতের সুস্বাদু মাল্টার বাগান শুরু করেন। কম খরচে ফলন ভালো ও লাভ বেশি হওয়ায় তিনি বাণিজ্যিকভাবে এ বছর আরও এক বিঘা জমিতে মাল্টা চাষ শুরু করেছেন।

গত বছর প্রতিকেজি মাল্টা বিক্রি হচ্ছে ১শ ৪০ টাকা থেকে ১শ ৫০ টাকা দরে। এ বছরও বিপুল পরিমাণ মাল্টা ধরেছে। এদিকে মাল্টাচাষী সাদোর মাল্টা চাষ দেখে বেকার যুবকেরা মাল্টা চাষে আগ্রহ প্রকাশ করছে।

তিনি আরও জানান, মাল্টার বাগানে তেমন বেশি রাসায়নিক সারের প্রয়োজন হয় না। মাল্টার ফুল আসার আগে জৈব সারের সঙ্গে স্বল্প পরিমাণে রাসায়নিক সার প্রয়োগ করতে হয়। মাল্টার বাগানে পরিচর্চা করেই ভাল মানের ফল পাওয়া সম্ভব ।

তিনি দাবি করেন, সরকারিভাবে ঋণ সুবিধাসহ সার্বিক সহযোগীতা পেলে উৎপাদিত মাল্টা চাষ প্রসারে ব্যাপক ভূমিকা রাখতে পারবেন উপজেলার কৃষকরা।

হাকিমপুর (হিলি) উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শামীমা নাজনীন বলেন, হাকিমপুর উপজেলায় মোট ৮ টি মাল্টা বাগান রয়েছে। এখানকার মাটি মাল্টা চাষের জন্য বেশ উপযুক্ত। এই উপজেলার মাল্টা ভারতের মাল্টার চেয়েও বেশি সুস্বাদু ও বেশি মিষ্টি। কৃুষি বিভাগের উদ্যোগে উন্নত জাতের মাল্টা চারা দিয়ে প্রথমে মাল্টাচাষী শাহাদৎ হোসেন সাদোর বাগান তৈরি করে দিয়েছি। তার বাগনে নিয়মিত পরিদর্শন করে প্রয়োজনীয় পরামর্শ দিয়ে যাচ্ছে।

তিনি আরও জানান, উপজেলার কৃষকসহ বেকার যুবকেরা মাল্টা চাষে উদ্বুদ্ধ হলে বেকারত্ব দুরীকরণের পাশাপাশি অন্যদেশেও মাল্টা রফতানি করা সম্ভব হবে।

আপনার মতামত লিখুন :